আদালত প্রাঙ্গনেই আকস্মিক মৃত্যু ব্রাদারহুড নেতা মোহাম্মদ মুরসির

image-69479-1560790632.jpg

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ-

মিশরের সাবেক প্রেসিডেন্ট ও ইসলামিক ব্রাদারহুড নেতা মোহাম্মদ মুরসি আদালতে হাজিরা দিতে যাওয়ার সময় আকস্মিকভাবে প্রাণ হারান। ২০১৩ সালে মিশরের ক্ষমতায় আসা মোহাম্মদ মুরসিকে সেনাবাহিনী উৎখাত করেছিল। এরপর থেকেই কারান্তরীন ছিলেন দেশটির অন্যতম জনপ্রিয় এই নেতা।

 

ইসলামী আন্দোলন মুসলিম ব্রাদারহুডের শীর্ষস্থানীয় ব্যক্তিত্ব মুরসিকে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে আদালতে নেয়া হচ্ছিল। মুরসির এই আন্দোলন বর্তমানে নিষিদ্ধ, তার ব্রাদারহুডকেও নিষিদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে। মিশরের এই নেতা দেশটির প্রথম গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত নেতা। দায়িত্ব গ্রহণের এক বছর পর গণবিক্ষোভের মুখে মুরসিকে উৎখাত করা হয়েছিল। তখন থেকেই তিনি পুলিশি হেফাজতে ছিলেন।

 

ক্ষমতা থেকে উৎখাতের পর মিশরীয় কর্তৃপক্ষ তার সমর্থকদের এবং মুসলিম ব্রাদারহুডের ওপর একটি অভিযান পরিচালনা করে। এই অভিযানে মুরসির সমর্থক ও সহযোগিদের আটক করা হয়। মোহাম্মদ মুরসি ৬৭ বছর বয়সে মারা গেলেন।

 

রাষ্ট্রীয় টেলিভিশনের মতে, সোমবার (১৭ জুন) মিশরের রাজধানী কায়রোতে ফিলিস্তিনের ইসলামী গ্রুপ হামাসের সঙ্গে গুপ্তচরবৃত্তির অভিযোগে শুনানির জন্য আনা হয়েছিল। সেখানে তিনি অজ্ঞান হয়ে গেলে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় এবং তাকে মৃত ঘোষণা করা হয়।

আপনার মন্তব্য দিন

Share this post

scroll to top