বৃহস্পতিবার, ১৭ অক্টোবর ২০১৯, ০১:২৫ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
মরিচ্যা যৌথ চেকপোষ্ট ইয়াবাসহ নারী মাদক কারবারি আটক দাম বাড়াতে পচানো হচ্ছে হাজার হাজার বস্তা পেঁয়াজ! কক্সবাজার শহরকে মাদক ও সন্ত্রাস মুক্ত করতে রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দের সহযোগীতা চাইলেন নবাগত ওসি শাহজাহান রিসোর্টের ১১৭ নম্বর কক্ষে ইয়াবা নিয়ে ধরা খেল দুইজন কক্সবাজার শহরকে শতভাগ মাদকমুক্ত করার ঘোষণা দেন নবাগত ওসি শাহজাহান কবির চলচ্চিত্রের উন্নয়নে কাজ করতে শেষ সুযোগ চান ইলিয়াস কোবরা কক্সবাজার ৭১’এ প্রকাশিত সংবাদের একাংশের প্রতিবাদ কক্সবাজার ৭১’এ প্রকাশিত সংবাদের একাংশের প্রতিবাদ নতুন সরকারি কোয়ার্টারে গ্যাস সংযোগ নয়: প্রধানমন্ত্রী ইতিহাস গড়া হলো না বাংলাদেশের

রোহিঙ্গা শিবিরে কাটা তারের বেড়া দিতে হবে : আইজিপি

আলোকিত টেকনাফ
  • আপডেট সময় বুধবার, ১০ জুলাই, ২০১৯
  • ১১ বার পঠিত

নিজস্ব প্রতিবেদক। 

রোহিঙ্গা শিবিরের চারপাশে কাটা তারের বেড়া এবং আইন প্রয়োগকারী সংস্থার জনবল বাড়ানোর উপর গুরুত্বারোপ করেছেন কক্সবাজারে সফররত তিন বাহিনী (পুলিশ, র‌্যাব ও বিজিবি) প্রধান।

বিজিবি ও র‌্যাব প্রধানের সঙ্গে কক্সবাজারে রোহিঙ্গা শিবির পরিদর্শন শেষে মঙ্গলবার (৯ জুলাই) রাত ৮ টার দিকে ১৭ নম্বর ক্যাম্পে সাংবাদিকদের পুলিশের মহা পরিদর্শক (আইজিপি) ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বলেন, ১১ লাখেরও বেশি রোহিঙ্গার জন্য বর্তমানে আইন প্রয়োগকারী সংস্থার যে পরিমাণ সদস্য আছে তা অপ্রতুল এবং রোহিঙ্গারা যাতে ক্যাম্পের বাইরে যেতে না পারে সেজন্য রোহিঙ্গা শিবিরের চারপাশে কাটাতারের বেড়া দিতে হবে।

তিনি আরও বলেন, ‘রোহিঙ্গা শিবির নিয়ে স্থানীয়দের জনজীবনে যাতে নিরাপত্তা বিঘ্নিত না হয় এবং শিবিরগুলোতে যাতে রোহিঙ্গাদের কারণে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণের বাইরে যেতে না পারে সেটাই আমরা ঘুরে দেখেছি। ঢাকায় পৌঁছার পর কিভাবে রোহিঙ্গা ক্যাম্পের নিরাপত্তা নিয়ন্ত্রণ করা যায় এ বিষয়ে পরিকল্পনা নেওয়া হবে। পাশাপাশি ক্যাম্পে অপরাধ দমনেও পরিকল্পনা নেবে তিন বাহিনী।’

এর আগে মঙ্গলবার বেলা ১১টার দিকে বিমানযোগে কক্সবাজার বিমানবন্দরে পৌঁছান আইজিপি ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী, র‌্যাবের মহাপরিচালক ড. বেনজীর আহমেদ এবং বিজিবির মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মো. সাফিনুল ইসলাম। তাদের সঙ্গে ছিলেন পুলিশের স্পেশাল ব্রাঞ্চের প্রধান ও অতিরিক্ত আইজিপি মীর শহীদুল ইসলাম, পুলিশের চট্টগ্রাম রেঞ্জের ডিআইজি খন্দকার গোলাম ফারুক।

কক্সবাজার পৌঁছানোর পর সমুদ্র সৈকত সংলগ্ন টুরিস্ট পুলিশের সম্মেলন কক্ষে একটি ব্রিফিং অনুষ্ঠিত হয়। এরপর বিকাল সাড়ে ৪ টায় রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শনে যান তারা।

তিন বাহিনীর প্রধানগণ ও ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উখিয়ার মধুর ছড়া ৩ নম্বর ক্যাম্প এবং ১৭ নম্বর ক্যাম্পে গিয়ে ক্যাম্প ইনচার্জসহ সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে মতবিনিময় করেন। মতবিনিময় সভায় কক্সবাজারের পুলিশ সুপার এবিএম মাসুদ হোসেন, শরণার্থী ত্রাণ ও প্রত্যাবাসন কমিশনার (অতিরিক্ত) সামশুদ্দোজা নয়ন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইকবাল হোছাইন উপস্থিত ছিলেন। বুধবার (১০ জুলাই) সকালে তাদের ঢাকায় ফিরে আসার কথা রয়েছে।

আপনার মন্তব্য দিন

নিউজটি শেয়ার করুন..

এ জাতীয় আরো খবর..
© All rights reserved © 2016-2019 | Alokitoteknaf.com
Theme Customized By Shah Mohammad Robel