শুক্র. আগ ৭, ২০২০

আলোকিত টেকনাফ

বিশ্বজুড়ে টেকনাফের প্রতিচ্ছবি

অস্ত্র ছিল, প্রাণ দিয়েছে তবুও গুলি চালায়নি ভারতীয় সেনারা!

১ min read

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

সোমবার রাতে ভারত-চীন সংঘর্ষে নিহত হয় ২০ জন ভারতীয় সৈনিক। এর পরই এই বিষয়ে শুরু হয় রাজনৈতিক বাক্যালাপ। বিরোধীরা প্রধানমন্ত্রী ও কেন্দ্রের কাছে জবাবদিহি চায়। ভারতীয় মিডিয়ায় খবর রটনা হয় লাদাখে সেদিন জওয়ানরা নিরস্ত্র ছিল। কিন্তু ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জানালেন, তাদের হাতে অস্ত্র ছিল, তবে গুলি চালায়নি।

 

ভারতে সরকার বিরোধীদের বক্তব্য, লাদাখের পরিস্থিতি নিয়ে স্পষ্টিকরণ করুক কেন্দ্র। এরই মধ্যে আজ সকালে রাহুল গান্ধী প্রশ্ন তোলেন, কেন অস্ত্র ছাড়া ভারতীয় সেনাদের সেখানে পাঠানো হয়েছিল। রাহুলের সেই প্রশ্নের জবাবেই এবার মুখ খুলেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর। এদিন তিনি জানিয়ে দেন যে ১৫ তারিখ রাতের সেই ঘটনার সময় সেনার কাছে অস্ত্র ছিল। তবে সংঘর্ষবিরতি চুক্তি বজায় রাখার তাগিদেই গুলি চালানো হয়নি ভারতের তরফে। 

 

তবে তার এই বক্তব্য মেনে নিতে পারছেন না নেটিজেনরা। তাদের দাবি, মন্ত্রীর কথা অনুযায়ী, ভারতীয় সেনারা প্রাণ দিয়েছে, তবুও অস্ত্র হাতে থাকতেও গুলি চালায়নি তারা। তারা বরং রাহুলের সন্দেহের পক্ষেই সাফাই গেয়েছে।

 

 

এর আগে রাহুল টুইটে প্রশ্ন করেন প্রধানমন্ত্রী নীরব থাকার কি? যদিও পরে মুখে খোলেন প্রধানমন্ত্রী। এর আগে ভারতীয় সংবাদ মাধ্যমের দাবি, লাদাখের গালওয়ান উপত্যকায় পয়েন্ট ১৪- থেকে কিছুতেই তাঁবু সরাতে রাজি হচ্ছিল না চীনা বাহিনী। এই নিয়ে দুই পক্ষের মধ্যে বিতণ্ডা শুরু হয়। সাদা পতাকা নিয়ে আলোচনার জন্য গিয়েছিল ভারতীয় সেনা। কিন্তু তাতে রাজি হয়নি চীনা সেনা। তারপরেই নিরস্ত্র অবস্থায় আলোচনায় বসা ১৬ নম্বর বিহার রেজিমেন্টের উপর হামলা চালায় চীনা বাহিনী।

আপনার মন্তব্য দিন
error: বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে এই সাইটের কোন উপাদান ব্যবহার করা সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ এবং কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ।