বুধ. জুন ৩, ২০২০

আলোকিত টেকনাফ

বিশ্বজুড়ে টেকনাফের প্রতিচ্ছবি

কক্সবাজারে মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালককে কুপিয়ে হত্যা

১ min read

শাহ মুহাম্মদ রুবেল, কক্সবাজার।

জমি সংক্রান্ত বিরোধকে কেন্দ্র করে কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলায় একটি মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালককে কুপিয়ে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে।

নিহত ওই মাদ্রাসা পরিচালকের নাম হাফেজ রুহুল আমিন। তিনি একই উপজেলার মৃত আমিন উল্লাহর ছেলে ও কৈয়ারবিল মখজনুল উলুম মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা পরিচালক।

শনিবার (৫ অক্টোবর) সকাল ৯টার দিকে উপজেলার কৈয়ারবিল ইউনিয়নের ৯ নম্বর ওয়ার্ডের মধ্যম কৈয়ারবিল গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, নিহত হাফেজ রুহুল আমিনের ভোগ দখলীয় একখণ্ড জমির মালিকানা দাবি করে আসছিল একই এলাকার মৃত মো. শফির ছেলে বেলাল উদ্দিন। এ নিয়ে বেলাল উদ্দিন বিভিন্ন সময় হুমকি-ধমকি দিয়ে আসছিল তাকে। ফলে রুহুল আমিন ওই জমিটি তার আপন ভাই মামুন মাস্টারকে বিক্রি করে দেন। পরে শনিবার সকালে জমিটির মালিকানা বুঝিয়ে দিতে গেলে অভিযুক্ত বেলাল উদ্দিন ও তার ছেলে হুমায়ুনের নেতৃত্বে একদল ভাড়াটিয়া সন্ত্রাসী বাহিনী রুহুল আমিনকে এলোপাতাড়ি কুপিয়ে হত্যা করে। এ সময় নিহত রুহুল আমিনের বড় ভাই আমিনুর রশিদ তাকে বাঁচাতে এগিয়ে আসলে সন্ত্রাসীরা তাকেও কুপিয়ে জখম করে।

পরে স্থানীয়রা তাকে উদ্ধার করে চকরিয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

এ দিকে, ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে স্থানীয়দের সহায়তায় মোহাম্মদ বেলাল উদ্দিন নামে এক ব্যক্তিকে আটক করেছে পুলিশ।

কুপিয়ে হত্যার বিষয়টি নিশ্চিত করে চকরিয়া থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হাবিবুর রহমান দৈনিক অধিকারকে বলেন, কৈয়ারবিল এলাকায় জমি সংক্রান্ত বিরোধের জেরে মাদ্রাসার পরিচালককে কুপিয়ে হত্যার ঘটনায় একজনকে আটক করা হয়েছে। এছাড়া ঘটনার সঙ্গে জড়িত অন্য আসামিদের আটক করতে পুলিশের একাধিক টিম মাঠে কাজ করছে। এ সময় নিহতের মরদেহটি ময়না তদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালের মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে বলেও উল্লেখ করেন তিনি।

আপনার মন্তব্য দিন
error: বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে এই সাইটের কোন উপাদান ব্যবহার করা সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ এবং কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ।