নিজস্ব প্রতিবেদক।

কক্সবাজারে র‍্যাবের পৃথক অভিযানে ৪ মাদক কারবারিকে আটক করা হয়েছে। এসময় ইয়াবা, বিয়ার ও পাচারকাজে ব্যবহৃত একটি মোটরসাইকেল ও জব্দ করা হয়েছে। পৃথক অভিযানের সত্যতা নিশ্চিত করেছেন র‍্যাব-১৫ এর সহকারী পরিচালক আবদুল্লাহ মোঃ শেখ সাদী।

তিনি জানান,   আজ ৬ এপ্রিল (মঙ্গলবার) বিকাল সাড়ে ৫টার দিকে জেলার রামু দক্ষিণ  মিঠাছড়ি  বনতলা মারিয়া ষ্টোরের সামনে র‍্যাব অভিযানে যায়। র‍্যাবের কাছে গোপন তথ্য ছিল উক্ত স্থানে ইয়াবা ক্রয়-বিক্রয়ের জন্য কয়েকজন মাদক আগে থেকে অবস্থান করছিল। র‍্যাব ঘটনাস্থলে পৌঁছালে মাদক কারবারিরা পালিয়ে যাওয়ার সময় ধাওয়া করে একজনকে আটক করে। আটককৃত ব্যক্তি উখিয়া উপজেলার কুতুপালং ১নং রোহিঙ্গা ক্যাম্পের ব্লক-ই/৯ এর বাসিন্দা হাবিব উল্লাহর ছেলে খাইরুল আমিন। পরে তার কাছে থাকা ব্যাগ তল্লাশী করে ৬হাজার পিস ইয়াবা পাওয়া যায়।

অপরদিকে,একইদিন সকাল সাড়ে ১১ টার দিকে রামু দক্ষিণ মিঠাছড়ি চেইন্দা ইন্টারন্যাশনাল এমিউজম্যান পার্ক এন্ড রিসোর্টের সামনে প্রধান সড়কে তল্লাশী চালায়।কিছুক্ষণ পর ৩জন আরোহী নিয়ে একটি মোটর সাইকেল চেকপোস্টের সামনে আসে। র‍্যাব-১৫ এর সদস্যরা তল্লাশী করতে যাওয়ার সময় মোটর সাইকেলটি ফেলে পালিয়ে যাওয়ার সময় ধাওয়া করে উখিয়া উপজেলার হলদিয়াপালংয়ের পাগলির বিলের নুরুল আলমের ছেলে সৈয়দুল হক (২৭), মরিচ্যার কাদির হোসনের ছেলে মোঃ সালাহ উদ্দিন (২৫) এবং পাগলির বিলের মোহাম্মদ হোসনের ছেলে আহমদ কবির (৩৬) কে ১টি প্লাস্টিকের বস্তাসহ আটক করে।পরে বস্তা তল্লাশী করে ১৭ক্যান বিদেশী বিয়ার, ২৩০পিস ইয়াবাসহ মোটর সাইকেলটি জব্দ করে।

কক্সবাজার র‍্যাব-১৫ এর সহকারী পরিচালক (মিডিয়া) এএসপি আব্দুল্লাহ মোহাম্মদ শেখ সাদী জানান, এই ব্যাপারে সংশ্লিষ্ট আইনে মামলা দায়েরের পর জব্দকৃত বিয়ার,ইয়াবা ও মোটর সাইকেলসহ ধৃতদের রামু থানায় সোর্পদ করা হয়েছে।