সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৫:৩৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
কক্সবাজারে পুলিশের উপিস্থিতিতে ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা টেকনাফে ৭ কোটি টাকার আইস ও ইয়াবা উদ্ধার, আটক ১ টেকনাফ স্থলবন্দর থেকে কর/শুল্ক ফাঁকি দিয়ে পাচারকালে ৭২লাখ টাকার অবৈধ মালামাল জব্দ- গ্রেফতার ৩ উখিয়ায় ৫০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার : এক রোহিঙ্গাসহ তিন জন গ্রেফতার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নারী ও শিশু নির্যাতন রোধে ৮-এপিবিএন এর হটলাইন চমেক শিশু স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান হলেন অধ্যাপক ডা. রেজাউল করিম অবশেষে শুরু হচ্ছে টেকনাফ-কক্সবাজার সড়কের নির্মাণ কাজ উখিয়া ক্যাম্পে ডাকাতি প্রস্তুতিকালে অস্ত্রসহ ছয় রোহিঙ্গা গ্রেফতার বঙ্গোপসাগরে ভাসমান স্বর্ণ: বদলে দিতে পারে দেশের ভাগ্য! টেকনাফে পাহাড় থেকে অস্ত্রসহ ২ রোহিঙ্গা ডাকাত গ্রেফতার

কক্সবাজার শহরে মাংস ব্যবসায়ীদের অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ৪ জুন, ২০১৮
  • ৩১৪ Time View

আবদুল করিম, স্পেশাল করেসপনডেন্ট :

কক্সবাজার পৌরসভা ও জেলা প্রশাসনের ঠিক করে দর বাতিলের দাবীতে অনির্দিষ্ট কালের ধর্মঘট ঘোষণা দিয়েছে মাংস বিক্রেতারা। এতে বিপাকে পড়েছে ক্রেতারা।
শুক্রবার দুপুরের পর থেকে একযোগে কক্সবাজার শহরের সকল বাজারের ব্যবসায়ীরা সব ধরণের মাংস বিক্রি বন্ধ করে দেয়।
জানা গেছে, সম্প্রতি শহরের প্রতিটি বাজারের ব্যবসায়ীদের ডেকে মাংসের দর ঠিক করে দেয় পৌরসভা ও জেলা প্রশাসন। এতে গরু ও মহিষের মাংসের দর ঠিক করা হয় ৪৫০ টাকা। কিন্তু ওই সিদ্ধান্ত অমান্য করে ব্যবসায়ীরা তাদের নিজেদের ঠিক করা দরে বিক্রি অব্যাহত রাখে। পরে জেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত কয়েকদফা অভিযান চালিয়ে মাংস ব্যবসায়ীদের জেল-জরিমানা করে।
পৌরসভা ও প্রশাসনের ঠিক করা দর এবং ভ্রাম্যমাণ আদালতের হয়রানির প্রতিবাদে শুক্রবার দুপুরের পর থেকে অনির্দিষ্টকালের ধর্মঘট ঘোষণা দেয় ব্যবসায়ীরা।
খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, শহরের বড়বাজার, কালুরদোকান বাজার, পিটিস্কুল বাজার, কানিয়াবাজার, নতুন বাহারছড়া, বাহারছড়া বাজার, কলাতলী বাজার, সদর উপজেলা বাজার ও লিংকরোড় বাজারের ব্যবসায়ীরা দুপুরে একযোগে মাংস বিক্রি বন্ধ করে দেয়। এরফলে চরম বিপাকে পড়েছে ক্রেতারা।
গতকাল শুক্রবার বিকেলে বড়বাজারে মাংস কিনতে যান নতুন বাহারছড়া এলাকার বেদারুল আলম। কিন্তু মাংস না পেয়ে তিনি হতাশ হয়ে ফিরে যান। তিনি বলেন, ব্যবসায়ীদের হঠাৎ মাংস বিক্রি বন্ধ করে দেওয়া ঠিক হয়নি। প্রশাসনের উচিত ব্যবসায়ীদের সাথে বসে দ্রুত সমস্যার সমাধান করা। কারণ শহরে প্রতিদিন হাজার হাজার মানুষ মাংস ক্রয় করে।
সমিতির সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম মাজু বলেন, সবকিছু হিসাব করতে গেলে ব্যবসায়ীদের প্রতিকেজি মাংসের দাম পড়ে গড়ে ৫০০ টাকা। সেই হিসাবে মাংস বিক্রি করতে হয় প্রতিকেজি নূন্যতম ৫০০ থেকে ৬০০ টাকা। কিন্তু প্রশাসন সবদিক বিবেচনা না করে দর ঠিক করে দিয়েছে প্রতিকেজি ৪৫০ টাকা। এই মূল্যে মাংস বিক্রি করলে ব্যবসায়ীরা চরম ক্ষতিগ্রস্থ হবে। ব্যবসা লাটে উঠতে বেশি সময় লাগবে না।
সভাপতি নুরুল আলম বলেন, এই সিদ্ধান্ত শিগগিরই বাতিল করতে হবে। যতক্ষণ পর্যন্ত সিদ্ধান্ত বাতিল হবে না ততক্ষণ পর্যন্ত সকল ব্যবসায়ীরা মাংস বিক্রি থেকে বিরত থাকবে।

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Alokito Teknaf
Handicraft By SHAH