শুক্র. জুলা ৩, ২০২০

আলোকিত টেকনাফ

বিশ্বজুড়ে টেকনাফের প্রতিচ্ছবি

কক্সবাজার সদরে ৭ করোনা ‘পজিটিভে’র ৫ জনই ডাক্তার, একজন কাস্টমস কর্মকর্তা

১ min read

নিজস্ব প্রতিবেদক

কক্সবাজারে এবার একদিনেই করোনা ‘পজিটিভ’ শনাক্ত হয়েছেন ৫ জন চিকিৎসক। এদের মধ্যে চারজন কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের চিকিৎসক এবং অন্যজন রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে সদ্য যোগদান করা একজন চিকিৎসক।

এছাড়াও কক্সবাজার সদরে ঈদের দিন সোমবার (২৫ মে) করোনা টেস্টে যে ৭ জন রোগী শনাক্ত হয়েছে তাদের মধ্যে রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের ওই চিকিসকসহ ৫ জন চিকিৎসক এবং রামুতে সদ্য যোগদানকারি ওই চিকিৎসকের বাবাও আক্রান্ত হয়েছেন। তাছাড়াও কক্সবাজার শহরে একজন কাস্টমস কর্মকর্তাও রয়েছেন।

কক্সবাজার জেলা সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মোহাম্মদ মহিউদ্দিন ও রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. ওয়ালিউর রহমান এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

কক্সবাজার সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. মো. মহিউদ্দিন জানান, ঈদের দিনে সোমবার করোনা টেষ্টে কক্সবাজার সদর হাসপাতালের চারজন ইন্টার্ণ চিকিৎসক করোনা ‘পজিটিভ’ এসেছে। এদের মধ্যে দুইজন মেডিসিন বিভাগে ও দুইজন সার্জারি বিভাগে কর্মরত।

তিনি জানান, ইতোপূর্বে সার্জারি বিভাগের একজন বিশেষজ্ঞ ডাক্তারও করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। তিনি কক্সবাজার সদর হাসপাতালের সার্জারি বিভাগের সহকারি রেজিষ্ট্রার।

অপরদিকে রামু উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক ডা. ওয়ালিউর রহমান জানান, তাদের হাসপাতালে সদ্যযোগদান করা একজন চিকিৎসক করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন। সাথে তার বাবাও আক্রান্ত।

তিনি জানান, ওই চিকিৎসক তার বাবাকে নিয়ে চিকিৎসার জন্য চট্টগ্রাম চলে যাওয়ার কথা। সর্বশেষ অবস্থা তিনি জানেন না।

সুত্র মতে, রামু হাসপাতালের ওই চিকিৎসক ও তার বাবা কক্সবাজার শহরের তারাবনিয়ারছড়া এলাকায় বসবাস করেন। তাদের পাশের বাড়িতে করোনায় আক্রান্ত হয়ে কয়েকদিন আগে খোরশেদ আলম নামের এক ব্যক্তি মারা গেছেন। ওই বাড়িটি তখন থেকে লকডাউন হয়ে আছে।

এদিকে কক্সবাজার মেডিকেল কলেজের একটি সুত্র জানিয়েছেন, সোমবার সদরে শনাক্ত হওয়া ৭ জনের মধ্যে একজন কাস্টমস কর্মকর্তাও আছেন। যার বাড়ি শহরের পেশকার পাড়ায়। অন্য ৬ জনের পাঁচজন ডাক্তার ও একজন ডাক্তারের বাবা।

আপনার মন্তব্য দিন
error: বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে এই সাইটের কোন উপাদান ব্যবহার করা সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ এবং কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ।