শাহ মুহাম্মদ রুবেল।

মহামারি করোনার সংক্রমণ থেকে রক্ষা পেতে টেকনাফ উপজেলার সাবরাং ইউনিয়নের কাটাবনিয়া জামে মসজিদে স্বাস্থ্যবিধি অনুসরণ করে ঈদুল ফিতরের জামাত অনুষ্ঠিত হয়েছে। জামাত শেষে করোনা ভাইরাস থেকে বাংলাদেশসহ বিশ্বকে মুক্ত এবং আক্রান্ত ও মৃতদের জন্য দোয়া প্রার্থনা করা হয়েছে।

শুক্রবার  (১৩ মে) সকাল ৮টায় শুরু হওয়া  জামাতে দেশ-জাতির মঙ্গল কামনায় আল্লাহর কাছে প্রার্থনা করা হয়।

দোয়া প্রার্থনায় মসজিদের ইমাম বলেন, আল্লাহ যারা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে ইন্তেকাল করেছেন, তাদের আপনি শাহাদাতের মর্যাদা দান করে দিন।

হে আল্লাহ, যারা অসুস্থ আছেন, দয়া করে তাদের শেফা দান করেন। এই মহামারি ও রোগ ব্যাধি থেকে আমাদের সবাইকে হেফাজত করে দিন। এই মহামারি থেকে বাংলাদেশসহ সারা বিশ্বকে আপনি মুক্তি দিন। এছাড়াও ফিলিস্তিনের নির্যাতিত মুসলমানদের জন্য ও দোয়া করা হয়।

নামাজ শেষে মুসল্লিরা জানান, পবিত্র ঈদের দিনে আমরা আল্লাহর কাছে দোয়া করেছি বিশ্ব যেন করোনামুক্ত হয়। এছাড়া আল্লাহপাক সব দুর্যোগ থেকে যেন আমাদের রক্ষা করেন এই প্রার্থনা করা হয়েছে। করোনার কারণে নামাজ শেষে ধর্মপ্রাণ মুসল্লিরা কোলাকুলি থেকে বিরত থাকলেও পরস্পরে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

এর আগে মসজিদে ঈদের নামাজ আদায় করতে মুসল্লিরা ছুটে আসেন। জামাতে এলাকার বরেণ্য ব্যক্তিরাও অংশ নেয়।

এদিকে সকাল ৮টায় কাটাবনিয়া জামে মসজিদে ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হয়। এতে ইমামতি করেন

হাফেজ মাওলানা রহমত উল্লাহ। ঈদের খুতবাহ পাঠ করেন মাওলানা মোহাম্মদ কাশেম। 

এরআগে ঈদের জামাতে সবাইকে নিজ নিজ জায়নামাজ নিয়ে এবং যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে মসজিদে এসে নামাজ আদায়ের জন্য মসজিদ কমিটির পক্ষ থেকে বলা হয়।