এম.জুবাইদ, পেকুয়া ( কক্সবাজার)

কক্সবাজারের পেকুয়ায় পূর্ব শত্রুতার জের ধরে  সন্ত্রাসীদের গুলিতে গুলিবিদ্ধসহ ৩ জন হতাহত হয়েছে।
২ মে রাত ৮ টায় উপজেলার মগনামা ইউনিয়নের ফুলতলা স্টেশনে এ ঘটনা ঘটে।  মগনামা ইউনিয়নের আফজালিয়া পাড়ার রুস্তম আলীর পুত্র জয়নাল আবেদীন (৩৬), একই  এলাকার মৃত নুরুন্নবীর পুত্র আলী আকবর(৩৮) পথচারী ও স্কুল ছাত্রী রিফা আক্তার।

আহতদের কে উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হলে আহত অবস্থা গুরুতর হাওয়ায় জয়নাল ও আলী আকবরকে চট্টগ্রাম মেডিকেলে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। আহতদের মধ্যে জয়নালের অবস্থা আশংকাজনক বলে জানিয়েছেন চিকিৎসক। তিনি আরো জানান, জয়নালের বুকে গুলি, মাথার পিছনে ও হাতে কোপ দেয়া হয়েছে। আলী আকবরকে বুকে গুলি করা হয়েছে। একই সাথে রিফা আক্তার নামে এক পথচারী স্কুল ছাত্রীকে কোপানো হয়েছে।

এদিকে রাত সাড়ে ১১ টায় এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মগনামা ইউনিয়নের চেয়ারম্যান শরাফতউল্লাহ ওয়াসিম জানিয়েছেন আহত জয়নাল আবেদীন চমেকে মৃত্যু বরন করেছেন।

স্থানীয় ও প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, রাত সাড়ে ৮টার দিকে ফুলতলা স্টেশনের আশুর দোকানের সামনে আফজালিয়া পাড়ার বদি আলমের ছেলে আবু ছৈয়দ ও লঞ্চঘাট এলাকার মৃত নুরুল হোছেনের ছেলে নেজাম উদ্দিন ছোটনের নেতৃত্বে সায়েদ, মোজাম্মেল, মোস্তাক, বুলু, আবুল কাশেম, আহমদ কবির, মকছুদ, নেছার, আবু হানিফ, শওকত আলম, জিয়াবুলসহ আরও ১০/১৫ জন সশস্ত্র হামলা করে জয়নাল আবেদীনের উপর। এতে ঘটনাস্থলে বুকে গুলিবিদ্ধ হয়ে জয়নাল আবেদীন মাটিতে লুটিয়ে পড়লে হামলাকারীরা এলোপাতাড়ি কুপিয়ে চলে যায়। জয়নালের সাথে থাকা আলী আকবরকেও গুলি করা হয়। স্থানীয়রা তাঁদের উদ্ধার করে পেকুয়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করালে কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. তাহমিদুল ইসলাম দুজনের অবস্থা আশঙ্কাজনক হওয়ায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে প্রেরণ করেন।

এ ব্যাপারে পেকুয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) সাইফুর রহমান মজুমদার বলেন, এ ধরনের ঘটনায় জড়িরা কোনভাবেই ছাড় পাবেনা। হামলাকারীদের ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।