1. engg.robel@gmail.com : আলোকিত টেকনাফ : Shah Mohamamd Robel
  2. shahmdrobel@gmail.com : Teknaf.Alokito :
ঘুর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের প্রভাবে টেকনাফে ব‍্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি - আলোকিত টেকনাফ
সোমবার, ০৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৩, ০২:২৭ অপরাহ্ন

ঘুর্ণিঝড় সিত্রাংয়ের প্রভাবে টেকনাফে ব‍্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি

মিজানুর রহমান মিজান
  • Update Time : বুধবার, ২৬ অক্টোবর, ২০২২
  • ৫০ Time View

ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং এর প্রভাবে দেশের সর্ব দক্ষিণ সীমান্ত উপজেলার নাফ নদী ও সাগর উপকূলীয় নিম্নাঞ্চল ইউনিয়ন হোয়াইক্যং,হ্নীলা,সাবরাং ও সেন্টমার্টিন দ্বীপে জলোচ্ছ্বাস সহ ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। ২৪ অক্টোবর সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং ৬ নং বিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলার পর মধ্যরাতে টেকনাফ সাগর উপকূলীয় এলাকায় ঘূর্ণিঝড়টি প্রবাহিত হলে সাবরাং ও সেন্টমার্টিনদ্বীপ ইউনিয়নে জলোচ্ছ্বাস ঘটে।

এ পর্যন্ত প্রাপ্ত তথ্যের ভিত্তিতে জানা যায়,ক্ষয় ক্ষতির মধ্যে দেশের একমাত্র প্রবাল দ্বীপটি জলোচ্ছাসে তলিয়ে যায়। সেন্টমার্টিন দ্বীপের পূর্ব পাড়া,পশ্চিমপাড়া,মাঝের পাড়া  কোনারপাড়া ও উত্তরপাড়া সহ জলনগ্ন  হয়ে যায়।
প্রত্যক্ষদর্শীর মতে প্রবাল দ্বীপে ৬ ফুট উচ্চতা জলোচ্ছ্বাস হলে প্রায় ৪ হাজার নারী পুরুষ ও শিশু সহ স্থানীয় আশ্রয় কেন্দ্র ও স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গিয়ে আশ্রয় নেয়।

সেন্টমার্টিন দ্বীপ থেকে ইউপি সদস্য খোরশেদ আলম জানান,সেন্টমার্টিন দ্বীপের ইতিহাসে অতীতে এধরণের ঘূর্ণি ঝড়ের তাণ্ডব দেখিনি।যা অতীত কে পর্যন্ত হার মানিয়েছে।স্মরণকালের সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় সিত্রাং প্রভাবে সেন্টমার্টিন দ্বীপ ও টেকনাফের সাথে যাতায়াতের মাধ্যম একমাত্র জেটির উপর জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হয়ে আস পাশের হোটেল রিসোর্ট সহ ঘর বাড়িতে হাঁটু পরিমাণ জলমগ্ন হয়।

তিনি আরও বলেন,সেন্টমার্টিন দ্বীপে ১৩ টি ফিশিং বোট প্রবল জোয়ার ও উত্তাল তরঙ্গে ডুবে যায়।সেই সাথে সেন্টমার্টিন ছেড়া দ্বীপে সৈকত তীরে একটি বিশাল আকারের বিদেশি নাবিকবিহীন জাহাজ ভেসে এসেছে।
টেকনাফের উপকুলীয় ইউনিয়ন সাবরাং,বাহারছড়া ও হ্নীলা ইউনিয়নে ব‍্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।সাবরাং ইউপির জিরো পয়েন্ট সংলগ্ন মেরিন ড্রাইভ সড়কে সিত্রাংয়ের থাবায় সড়কে প্রায় একশ মিটার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।শাহ্পরীর দ্বীপ পশ্চিম পাড়া সংলগ্ন সাগর উপকুলের বেড়িবাধ অতিক্রম করে কয়েকটি গ্রাম প্লাবিত হয়ে ফসলি জমি ও ঘরবাড়ির ব‍্যাপক ক্ষতি হয়েছে।

এছাড়াও টেকনাফের প্রতিটি গ্রামের নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হয়ে ধান চাষের বিস্তর ক্ষতি হয়েছে এবং বাড়িঘরের ঘেরা বেড়া ও গাছ পালা ভেঙেছে।

আজ ২৫ অক্টাবর সকালে সংশ্লিষ্ট ইউপি চেয়ারম্যানদের সাথে নিয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় গিয়ে খোঁজ খবর নেন টেকনাফ উপজেলা ভারপ্রাপ্ত নির্বাহী অফিসার মোঃ এরফানুল হক চৌধুরী।জনদুর্ভোগ লাগবে উপজেলার পক্ষ থেকে প্রয়োজনীয় ব‍্যবস্থা নিবেন বলে জানান তিনি।

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Alokito Teknaf
Theme Customization By NewsSun