শুক্রবার, ০১ জুলাই ২০২২, ০২:১১ পূর্বাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নারী ও শিশু নির্যাতন রোধে ৮-এপিবিএন এর হটলাইন চমেক শিশু স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান হলেন অধ্যাপক ডা. রেজাউল করিম অবশেষে শুরু হচ্ছে টেকনাফ-কক্সবাজার সড়কের নির্মাণ কাজ উখিয়া ক্যাম্পে ডাকাতি প্রস্তুতিকালে অস্ত্রসহ ছয় রোহিঙ্গা গ্রেফতার বঙ্গোপসাগরে ভাসমান স্বর্ণ: বদলে দিতে পারে দেশের ভাগ্য! টেকনাফে পাহাড় থেকে অস্ত্রসহ ২ রোহিঙ্গা ডাকাত গ্রেফতার অপহৃত মিয়ানমারের দুই শিক্ষক বিজিপির নিকট হস্তান্তর উখিয়া রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের গুলিতে তালিকাভূক্ত সন্ত্রাসী নিহত মিয়ানমার থেকে পাচারকালে ১কেজি আইসসহ পাচারকারী গ্রেফতার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ‍‍‌‌‌‌‌‍’বাড়ি চলো’ ক্যাম্পেইন চলছে

মানবাধিকার কমিশন চেয়ারম্যানের কাছে কাউন্সিলর একরাম হত্যাকান্ডের সুষ্ট বিচারের দাবি মা হাফেজার

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ২৪ জুন, ২০১৮
  • ৩৩৬ Time View

মিজানুর রহমান মিজান, স্টাফ করস্পন্ডেন্টঃ-

মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যানের কাছে কাউন্সিলর একরাম হত্যাকান্ডের সুষ্ট বিচারের দাবি করেছেন মা হাফেজা বেগম। তিনি দাবী করেন, আমার ছেলে একরামুল হক মাদক ব্যবসায়ী ছিলেননা। আমার ছেলেকে মাদক ব্যবসায়ী সাজিয়ে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করা হয়েছে।
২৪ জুন রোববার বিকেল তিনটার দিকে কক্সবাজারের টেকনাফ পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর বন্দুকযুদ্ধে নিহত একরামুল হকের বাড়ি পরির্দশন করেন। এ সময় নিহত একরামুল হকের মা হাফেজা বেগম উপরোক্ত কথা গুলো বলেন। এসময় একরামুল হকের স্ত্রী ও দুই মেয়ে বাড়িতে ছিলেনা। তিনি একরামের পরিবারের সদস্যদের বিভিন্ন বিষয়ে খোঁজ খবর নেন।
জাতীয় মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান কাজী রিয়াজুল হক বলেন, টেকনাফ পৌরসভার ৩ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর নিহত একরামুল হকের ঘটনার তদন্ত পূর্বক সুষ্ট বিচারের দাবি জানিয়েছেন।এ ধরনের হত্যাকান্ড বিচারবহিভূত। এটি দেশের জন্য কাম্য নই বলে জানায়।
কাজী রিয়াজুল হক আরো বলেন, বিচারবহিভুত হত্যাকান্ডের মাধ্যমে মাদক নির্মুল করা সম্ভব নই। কেউ আইনের উর্দ্ধে নই, মাদক বিরুধী অভিযানে যাতে কোন নিরহ মানুষ যেন মারা না যায়। এ মাদক বিরুধী অভিযানে যাচাই-বাচাই করে আসল অপরাধীদের আইনের আওতায় নিয়ে আসতে হবে। তবে অভিযানের নামে কোন মানুষের মৃত্যু না হয়, সেটি আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও সরকারের দায়িত্ব। কাউন্সিলর একরামুল হকের অডিও ক্লিপ শুনে আমরা খবুই মর্মাহত।
পরিদর্শনকালে উপস্থিত ছিলেন, কক্সবাজার জেলা জজ পরিচালক আল মাহামুদ ফয়জুল কবির, সার্বক্ষনিক দায়িত্ব থাকা মো. নজরুল ইসলাম, জেলা মানবাধিকার কমিশনের চেয়ারম্যান হাজী আরফান আশিক। টেকনাফ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. রবিউল হাসান, টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনর্চাজ (ওসি) রনজিত কুমার বড়–য়া।
এদিকে কাউন্সিলর একরামুল হক নিহতের পর গত ৩১ মে কক্সবাজার প্রেস ক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলনে একরামুল হককে মাদকবিরোধী অভিযানের নামে ঠান্ডা মাথায় পরিকল্পিতভাবে হত্যা করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছিলেন তার স্ত্রী আয়েশা বেগম এবং সে সময় হাত্যা কান্ডের একটি অডিও ক্লিপ প্রকাশ করেছিলেন।
প্রসঙ্গত গত ২৬ মে রাতে কক্সবাজার-টেকনাফ মেরিন ড্রাইভ সড়কের নোয়াখালিয়া পাড়ায় র‌্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে নিহত হন টেকনাফ পৌরসভার কাউন্সিলর একরামুল হক।

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Alokito Teknaf
Handicraft By SHAH