মুঠোফোন স্যানিটাইজ করলেই ভয়ঙ্কর বিপদ!

প্রযুক্তি ডেস্ক:-

বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ঢেউয়ে নিত্যদিন দ্বিগুণ হারে বাড়ছে সংক্রমণ। প্রতি সেকেন্ডে কেউ না কেউ আক্রান্ত হচ্ছে। সাথে বাড়ছে মৃতের সংখ্যাও। সংকটপূর্ণ এই পরিস্থিতিতে করোনা প্রসঙ্গে প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞের একটি দল জানল নতুন সতর্কবার্তা।

তাদের দাবি স্টেইনলেস স্টিল, কাচ আর ব্যাঙ্ক নোটের ওপর প্রায় ২৮ দিন পর্যন্ত টিকে থাকতে পারে করোনা ভাইরাস। এই খবর প্রকাশ্যে আসতেই স্যানিটাইজার স্প্রে করা শুরু করেছেন মানুষ।

ঘন ঘন স্যানিটাইজারের ব্যাবহারে বিপদ অপেক্ষা করছে আপনার ফোনের কপালে। সাথে ঝুঁকিতে রয়েছেন আপনিও। প্রথম যেটি হবে তা হলো- অ্যালকোহলযুক্ত স্যানিটাইজারটি ফোনের ওপর পরলে স্ক্রিন, হেডফোন জ্যাক এবং স্পিকার খারাপ হবে।

করোনার পরে, ফোন মেরামত কেন্দ্রে পুনরুদ্ধারের সংখ্যা উল্লেখযোগ্যভাবে বেড়েছে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে এই ধরনের ফোনগুলো মেরামত কেন্দ্রে আসছে যা স্যানিটাইজার দিয়ে পরিষ্কার করা হয়েছে। সেখানকারই এক কর্মীর কথায়, অনেক লোক মোবাইলটিকে এমনভাবে স্যানিটাইজ করছেন যে স্যানিটাইজারটি হেডফোন জ্যাকটিতে প্রবেশ করে। ফোনের অন্দরমহলে শর্ট সার্কিট হয়ে যাচ্ছে।

এছাড়া স্যানিটাইজার দিয়ে ফোনটি পরিষ্কার করা হলে আপনার ফোনের রঙ পরিবর্তন হতে পারে। অ্যালকোহল-ভিত্তিক স্যানিটাইজার ফোনের ডিসপ্লে এবং ক্যামেরার লেন্সকে ক্ষতি করতে পারে। এটি ফোনের ডিসপ্লেকে হলুদ করে দেবে।

সিএসআইআরও-এর বিজ্ঞানীদের দাবি, সাধারণ ফ্লু-এর জীবাণুর চেয়ে দীর্ঘজীবী করোনা ভাইরাস। তার পরীক্ষা করে দেখেছেন, ২০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় প্লাস্টিকের ব্যাঙ্ক নোট ও মোবাইল ফোনের স্ক্রিনে ব্যবহৃত কাঁচের ওপর টানা ২৮ দিন পর্যন্ত সক্রিয় থাকতে পারে এই ভাইরাস। এ ক্ষেত্রে সাধারণ ফ্লুয়ের জীবাণু ১৭ দিন পর্যন্ত টিকে থাকতে পারে।