সেপ্টেম্বর ২১, ২০২০

আলোকিত টেকনাফ

বিশ্বজুড়ে টেকনাফের প্রতিচ্ছবি

হয়রানি থেকে মুক্তি চায় শিফাত-শিপ্রার পরিবার

১ min read

নিজস্ব প্রতিবেদক

সাবেক সেনা কর্মকর্তা রাশেদ সিনহা হত্যাকাণ্ডের সাক্ষি শিফাত এবং টিম মেম্বার, নির্মাতা শিপ্রা রাণী দেবনাথকে পুলিশ ফাঁসানোর চেষ্টা করছে বলে অভিযোগ করেছেন দুইজনের পরিবারের সদস্যরা। সাজানো মামলায় হয়রানির অপচেষ্টা থেকে মুক্তি চায় শিফাত ও শিপ্রার পরিবার।

গত ৩১শ জুলাই (শুক্রবার) রাতে কক্সবাজারে পুলিশের গুলিতে খুন হন অবসরপ্রাপ্ত মেজর রাশেদ সিনহা। এসময় ঘটনাস্থল থেকেই প্রত্যক্ষদর্শী ক্যামেরাম্যান সাহেদুল ইসলাম শিফাত এবং রেস্ট হাউজে থাকা নির্মাতা শিপ্রা রানী দেবনাথ ও ভিডিও এডিটর তাহসিন রিফাত নূরকে আটক করে পুলিশ। পরে রিফাতকে ছেড়ে দেওয়া হলেও শিফাত ও শিপ্রাকে বেশকিছু মামলায় আসামি দেখিয়ে কারাগারে পাঠায় পুলিশ।

স্ট্যামফোর্ড ইউনিভার্সিটির ফিল্ম অ্যান্ড মিডিয়া বিভাগের শিক্ষার্থী সিফাত ও শিপ্রা তৃতীয় বর্ষের শিক্ষার্থী এবং তাহসিন শেষ বর্ষের ছাত্র। তিনজনই প্রোডাকশনের কাজ করছিলেন অনেকদিন ধরেই। বছরখানেক আগে তাদের পরিচয় হয় অবসরপ্রাপ্ত মেজর সিনহা রাশেদের সঙ্গে। একটি তথ্যচিত্র নির্মাণের জন্য এই তিনজনকে নিয়ে সিনহা রাশেদ কক্সবাজারে গিয়েছিলেন।

শিফাত ও শিপ্রার পরিবারের সদস্যরা বিশ্বাস করতে পারছেন না যে, তাদের ছেলেমেয়েদের এমন একটা পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যেতে হবে। পরিবারের সবাই আতঙ্কগ্রস্ত হয়ে পড়েছে। তাদের দাবি নিজেদের অপকর্ম ঢাকতেই সাজানো মামলার মধ্য দিয়ে তাদের হয়রানি করছে পুলিশ।

গত ১ আগস্ট পুলিশ শিপ্রাকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য পাঁচ দিনের রিমান্ড আবেদন করে। এখনো তা মঞ্জুর হয়নি। জানা গেছে, মেরিন ড্রাইভে সিনহা ও শিফাত যখন পুলিশের মুখোমুখি, তখন শিপ্রা ও তাহসিন ইফাদ ছিলেন রিসোর্টে। তথ্যচিত্র নির্মাণের কাজে তারা হিমছড়ি এলাকার নীলিমা রিসোর্টে উঠেছিলেন।

পুলিশের আবেদন করা রিমান্ড মঞ্জুর হলে শিফাত-শিপ্রাদের জীবন ঝুঁকিতে পড়বে বলে তাদের অভিভাবকরা মনে করেন। সুষ্ঠু তদন্তের মাধ্যমে নির্দোষ শিফাত ও শিপ্রাকে দ্রুত ফিরিয়ে দেয়ার দাবি তাদের পরিবারের।

আপনার মন্তব্য দিন
error: বাণিজ্যিক উদ্দেশ্যে এই সাইটের কোন উপাদান ব্যবহার করা সম্পূর্ণভাবে নিষিদ্ধ এবং কপিরাইট আইনে দণ্ডনীয় অপরাধ।