বৃহস্পতিবার, ০৭ জুলাই ২০২২, ০২:৪৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
নববধূ সেজে ঢাকা থেকে ইয়াবা কিনতে এসে পুলিশের হাতে ধরা উখিয়া ক্যাম্পে অস্ত্র ও ইয়াবাসহ দুই রোহিঙ্গা গ্রেফতার কক্সবাজারে পুলিশের উপিস্থিতিতে ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা টেকনাফে ৭ কোটি টাকার আইস ও ইয়াবা উদ্ধার, আটক ১ টেকনাফ স্থলবন্দর থেকে কর/শুল্ক ফাঁকি দিয়ে পাচারকালে ৭২লাখ টাকার অবৈধ মালামাল জব্দ- গ্রেফতার ৩ উখিয়ায় ৫০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার : এক রোহিঙ্গাসহ তিন জন গ্রেফতার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নারী ও শিশু নির্যাতন রোধে ৮-এপিবিএন এর হটলাইন চমেক শিশু স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান হলেন অধ্যাপক ডা. রেজাউল করিম অবশেষে শুরু হচ্ছে টেকনাফ-কক্সবাজার সড়কের নির্মাণ কাজ উখিয়া ক্যাম্পে ডাকাতি প্রস্তুতিকালে অস্ত্রসহ ছয় রোহিঙ্গা গ্রেফতার

অবিভাবক এবং টেকনাফ ডিগ্রি কলেজের ‘এইচ এস সি’ র ফলাফল প্রসঙ্গ

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ২১ জুলাই, ২০১৮
  • ৪৪৬ Time View

মোট পরীক্ষার্থীঃ২২৫
পাসঃ ৯৮ জন
ফেলঃ ১২৭ জন
পাশের হারঃ ৩৮.৪৩

আমার জন্ম টেকনাফ উপজেলায়। আমি একজন টেকনাইফ্যা হিসাবে আমার এলাকার মানুষের কৃতিত্বে যেমনি আত্মগর্বে পুলকিত ও অহংবোধী হই। তেমনি হৃদয় বুক চিরে রক্তক্ষরণ হয় তাদের ব্যর্থতায়। একটি দেশের রক্ষিত জল কিংবা স্হল সীমান্ত পরস্পরের জন্য অর্থনৈতিক,সাংস্কৃতিক ও যোগাযোগের জন্য আষীর্বাদ। আবার অরক্ষিত সীমান্ত দেশ ও জাতীর জন্য অভিশাপ ও বটে।

আমাদের এলাকার অবিভাবকদের কাঁচা পাকা টাকা,উচ্চ বিলাসিতা, বেহিসাবি জীবন যাপনে অভ্যস্হতাও তার প্রতি উৎসাহিতের কারনে তাদের স্কুল কলেজে পড়ুয়া সন্তানের হাতে তুলে দিচ্ছে আবদারের বায়নাস্বরুপ দুষ্প্রাপ্য সব নামী দামী বাইক,আইফোনসহ বিশ্ব ব্রান্ডের বিরল মোবাইল সেট।

টেকনাফ কলেজ ক্যাম্পাসে কোন অপরিচিত কেউ গেলে মনে হবে যেন এটা বুঝি মোটর শো রুমে বিক্রয়ের জন্য নিত্য নতুন সব দামী বাইকের পসরা সাজিয়েছে। ছাত্র ছাত্রীরা কলেজ ক্যাম্পাসকে শিক্ষা গ্রহনের স্হান মনে করে না।তারা মনে করে ওটা তাদের বাবা- ভাইয়ের টাকার আধিক্য,মডেলিং ও নিজেদেরকে জাহির করার আদর্শ স্হান।

আবার অবিভাবকরা বেজায় খুশি তাদের আদরের দুলাল দুলারিদের ইচ্ছেমত চাহিদা পূরণ করতে পেরে এবং তার জন্য অভিবাবকরা নির্লজ্জ অহংকারও করে। টাকা টাকা আর টাকার বিলাসিতায় অবিভাবকরা এত্ত বেশি মত্ত থাকে যে তারা নিজের মূর্খতা ও অশিক্ষাকে বড় করে দেখে।

কারো কাছ থেকে শিক্ষা, উপদেশ ও নীতিবাক্য শুনা তো দূরে থাক কেউ আগ বাড়াইয়া আসিলে তাদেরকে ভৎসর্ণা করে। কোন অবিভাবক কি স্কুল কলেজে গিয়ে খোঁজ খবর নিয়েছে তাদের সন্তনরা নিয়মিত স্কুল কলেজে যাচ্ছে কিনা? ঠিক মত পাঠদান হচ্ছে বা নিচ্ছে কিনা? শিক্ষকদের কাছে সন্তানের পড়ালেখার ব্যাপারে পরামর্শ নিয়েছেন কিনা? হে ঠিক! আপনারাই সেই অবিভাবক যে নিজের মূর্খতা ও অশিক্ষার কারনে আপনাদের সন্তানদের উজ্জল সম্ভাবনাময় ভবিষ্যত ক্রমে ক্রমে দূর অন্ধকারের দিকে ঠেলে দিচ্ছেন।এই জন্য একজন 


অবিভাবকের অশিক্ষা,মূর্খ্যতা,কাচাঁ টাকার আধিপত্য, বিলাসিতা ও অহংকার ইত্যাদি দায়ী। আসুন অবিভাবকগণ আমরা আমাদের শিক্ষাকে যথাযথ মূল্যায়নের মাধ্যমে সর্বোচ্চ অগ্রাধিকার দিই। সন্তানের হাতে নামীদামি বাইক, মোবাইল ইত্যাদি না দিয়ে তুলে দিই কলম,খাতা ও শিক্ষনীয় যতসব। অন্যথায় আমরা টেকনাফবাসী অভিশপ্ত ও ঘৃণ্য জাতি হিসাবে রয়ে যাব। এই পাপের বোঝা পুরো দেশকেই বইতে হবে।

লেখকঃ- 

অ্যাডভোকেট এম,জিয়াউর রহমান জিয়া
অ্যাডভোকেট
কক্সবাজার জজ আদালত
উপদেষ্টা সম্পাদকঃ আলোকিত টেকনাফ ডট কম, নিউজ কক্সবাজার ডট কম 

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Alokito Teknaf
Handicraft By SHAH