রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ০১:৪৫ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
টেকনাফে ৭ কোটি টাকার আইস ও ইয়াবা উদ্ধার, আটক ১ টেকনাফ স্থলবন্দর থেকে কর/শুল্ক ফাঁকি দিয়ে পাচারকালে ৭২লাখ টাকার অবৈধ মালামাল জব্দ- গ্রেফতার ৩ উখিয়ায় ৫০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার : এক রোহিঙ্গাসহ তিন জন গ্রেফতার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নারী ও শিশু নির্যাতন রোধে ৮-এপিবিএন এর হটলাইন চমেক শিশু স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান হলেন অধ্যাপক ডা. রেজাউল করিম অবশেষে শুরু হচ্ছে টেকনাফ-কক্সবাজার সড়কের নির্মাণ কাজ উখিয়া ক্যাম্পে ডাকাতি প্রস্তুতিকালে অস্ত্রসহ ছয় রোহিঙ্গা গ্রেফতার বঙ্গোপসাগরে ভাসমান স্বর্ণ: বদলে দিতে পারে দেশের ভাগ্য! টেকনাফে পাহাড় থেকে অস্ত্রসহ ২ রোহিঙ্গা ডাকাত গ্রেফতার অপহৃত মিয়ানমারের দুই শিক্ষক বিজিপির নিকট হস্তান্তর

ধর্মীয় লেবাসধারী চাঁদাবাজ চক্রের ২ রোহিঙ্গা সদস্য আটক

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ২১ মে, ২০১৮
  • ৪৪২ Time View

আলোকিত টেকনাফ ডেস্ক:-

ধর্মীয় লেবাস পরিধান করে পবিত্র রমজান মাসে জাকাত ফিৎরা আদায়ে মাঠে নেমেছে প্রতারক চক্র। দীর্ঘ দিন ধরে ভুয়া চাঁদাবাজ চক্র মাঠে রেযেচে বলে অভিযোগ উঠছিল৷ অবশেষে গত কাল ২০ মে রবিবার বিকালে টেকনাফ বাস স্টেশনের বিভিন্ন দোকানে মাদরাসার নামে চাঁদা আদায়কালে এক ব্যবসায়ীর হাতে আটক হয়েছেন আবদুল গফুর ও ফজল আহমদ নামের চাঁদাবাজ চক্রের ২ সদস্য। আটক ২ জনই রোহিঙ্গা নাগরিক।
আটককৃতরা স্বীকারোক্তিতে বলেন তারা কেউ আলেম নই। এবং তারা মিয়ানমারের রোহিঙ্গা নাগরিক।

ছবি: আলোকিত টেকনাফ ডট কম

জুব্বা পাগড়ী পরে আলেমের লেবাস ধারন করে নিয়মিত প্রতারনা করে চাঁদা কালেকশান করে আসছে৷ । তাদের স্বীকারোক্তিতে আরো বলেন আমরা টেকনাফ বাহারছড়া ইউনিয়নের দক্ষিণ শীলখালী গ্রামে ইসলামিয়া হোসাইনিয়া হেফজ খানা ও এতিম খানা নামে ভোঁয়া চাঁদার রসিদ বই চাপিয়ে কালেকশন করছি’।
পরে অন্যান্য প্রকৃত দ্বীনি মাদরাসার কথা বিবেচনা করে মুসলেকার মাধ্যমে দুই প্রতারককে ছেড়ে দেয়া হয়েছে। এভাবে ভুঁয়া নাম ঠিকানা ব্যবহার করে অসংখ্য লোক প্রকৃত হুজুরদের লেবাস পরে জাকাত ফিৎরা আদায়ে মাঠে নেমেছে বলে জানা গেছে।
এব্যাপারে টেকনাফ উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মাও. রফিক উদ্দীন বলেন ‘প্রকৃত আলেমদের সম্মান নষ্ট করে যারা ইসলাম বিক্রি করছেন তাদের আটক পূর্বক থানায় দিলে ইসলাম ও আলেমদের সম্মান রক্ষা পাবে’।
টেকনাফ বাস স্টেশন ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি আবদুল করিম বলেন ‘আমরা হুজুরদের অনেক বেশী শ্রদ্ধা করি। কেউ এ সুযোগে প্রতারণা করছে এমন সংবাদ পেলে খুবই খরাপ লাগে। যারা মাদরাসা প্রতিষ্ঠানের নামে চাঁদা নিতে আসবেন তাদের বৈধ অনুমতিপত্র থাকতে হবে। মাদরাসা বোর্ড বা সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানের বৈধ ডকুমেন্টস না থাকলে তাদের আমরা প্রতারক বলে হিসাব করব’।

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Alokito Teknaf
Handicraft By SHAH