রবিবার, ০৩ জুলাই ২০২২, ০৩:০৪ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
টেকনাফে ৭ কোটি টাকার আইস ও ইয়াবা উদ্ধার, আটক ১ টেকনাফ স্থলবন্দর থেকে কর/শুল্ক ফাঁকি দিয়ে পাচারকালে ৭২লাখ টাকার অবৈধ মালামাল জব্দ- গ্রেফতার ৩ উখিয়ায় ৫০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার : এক রোহিঙ্গাসহ তিন জন গ্রেফতার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নারী ও শিশু নির্যাতন রোধে ৮-এপিবিএন এর হটলাইন চমেক শিশু স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান হলেন অধ্যাপক ডা. রেজাউল করিম অবশেষে শুরু হচ্ছে টেকনাফ-কক্সবাজার সড়কের নির্মাণ কাজ উখিয়া ক্যাম্পে ডাকাতি প্রস্তুতিকালে অস্ত্রসহ ছয় রোহিঙ্গা গ্রেফতার বঙ্গোপসাগরে ভাসমান স্বর্ণ: বদলে দিতে পারে দেশের ভাগ্য! টেকনাফে পাহাড় থেকে অস্ত্রসহ ২ রোহিঙ্গা ডাকাত গ্রেফতার অপহৃত মিয়ানমারের দুই শিক্ষক বিজিপির নিকট হস্তান্তর

মাদকের জন্য মেয়েকে বিক্রি!

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ১১ আগস্ট, ২০১৮
  • ২৮১ Time View

নিজস্ব প্রতিনিধিঃ-

মানুষ এত নিষ্ঠুর হতে পারে ভাবা মুশকিল। পারেও বটে! নেশাকে যারা পেশা মেনে নিয়েছে তাদের দ্বারাই নিকৃষ্ট বা নিষ্ঠুর আচরণ করা সম্ভব। অনেকগুলো ক্ষতিকর নেশা আছে আমদের দেশে। তার মধ্যে অতি ভয়াবহ হচ্ছে- মাদক। হায় সর্বনাশা মাদক! তোর শক্তি দেখে বিস্ময়ে অবাক না হয়ে পারা যায় না। মানুষকে আর কোথায় নিয়ে যাবি তুই? তোর ছোবলে আক্রান্ত এক হৃদয়হীন বাবা আজ তার (প্রাণের চেয়ে প্রিয়) মেয়েকে বিক্রি করতে দ্বিধাবোধ করছে না।

তেমনই এক ঘটনা ঘটেছে কক্সবাজারে। মাদকের টাকা জোগাড় করতে স্ত্রীর অগোচরে নিজের দেড় বছরের মেয়ে জান্নাতুল মেহেরাজকেই বিক্রি করে দেন রেজাউল নামের এক পাষণ্ড বাবা। এক সপ্তাহ যাবৎ কোলের সন্তানকে হারিয়ে যখন পাগলপ্রায় স্ত্রী রাবেয়া তখন লোকমুখে জানতে পারেন স্বামীর কাণ্ড। পরে রাবেয়া বিষয়টি পুলিশকে জানালে পুলিশ প্রথমে রেজাউলকে আটক করে। এ সময় তার কাছ থেকে ইয়াবাও উদ্ধার করা হয়। শেষে রেজাউলের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে শুক্রবার সকালে মহেশখালী উপজেলার একটি গ্রাম থেকে শিশুটিকে উদ্ধার করে পুলিশ।

রাবেয়া সাংবাদিকদের বলেন, আট দিন আগে আমি অন্যের বাড়িতে ঝিয়ের কাজ করতে গেলে অজান্তে মেয়ে জান্নাতুল মেহেরাজকে চুরি করে নিয়ে যায় মাদকাসক্ত স্বামী রেজাউল। এরপর অনেক খোঁজাখুঁজি করেও পাচ্ছিলাম না বুকের ধনকে। হঠাৎ বৃহস্পতিবার বিকেলে স্থানীয় লোকজনের মাধ্যমে খবর পাই শিশুটিকে মহেশখালীর শাপলাপুরের বারিয়াপাড়ায় এক ব্যক্তির কাছে বিক্রি করে দেয়া হয়েছে।

রেজাউল ওই ব্যক্তিকে জানিয়েছিল, সে চলার পথে শিশুটিকে কুড়িয়ে পায়। তার কথা বিশ্বাস করে ওই ব্যক্তি শিশুটিকে হেফাজতে নেন। বিনিময়ে রেজাউলকে হাজারখানেক টাকা দেন। ওই টাকা দিয়ে ইয়াবা কিনে সেবন করছে রেজাউল। তখন স্থানীয় লোকজনের সহায়তায় পুলিশের কাছে গিয়ে বিস্তারিত জানাই। পরে পুলিশ অভিযান চালিয়ে রেজাউলকে ইয়াবাসহ গ্রেপ্তার করে। আট দিন পর আজ (শুক্রবার) সকালে পুলিশের সহায়তায় কোলের সন্তানকে উদ্ধার করে নিয়ে আসি।

চকরিয়া থানার এসআই গাজী মঈন উদ্দিন বলেন, অভিযোগ পাওয়ার পর প্রথমে রেজাউলকে আটক করা হয়। এ সময় তার কাছ থেকে পাওয়া যায় ৩৩ পিস ইয়াবা।

থানার ওসি মো. বখতিয়ার উদ্দিন চৌধুরী বলেন, মাদকাসক্ত রেজাউলের নিজের সন্তান চুরি করে বিক্রির ঘটনায় প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। একই সঙ্গে ইয়াবা উদ্ধারের ঘটনায় রেজাউলের বিরুদ্ধে মামলা রুজু করা হয়েছে।

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Alokito Teknaf
Handicraft By SHAH