সোমবার, ০৪ জুলাই ২০২২, ০৫:৫৩ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
কক্সবাজারে পুলিশের উপিস্থিতিতে ছাত্রলীগ নেতাকে কুপিয়ে হত্যা টেকনাফে ৭ কোটি টাকার আইস ও ইয়াবা উদ্ধার, আটক ১ টেকনাফ স্থলবন্দর থেকে কর/শুল্ক ফাঁকি দিয়ে পাচারকালে ৭২লাখ টাকার অবৈধ মালামাল জব্দ- গ্রেফতার ৩ উখিয়ায় ৫০ হাজার ইয়াবা উদ্ধার : এক রোহিঙ্গাসহ তিন জন গ্রেফতার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নারী ও শিশু নির্যাতন রোধে ৮-এপিবিএন এর হটলাইন চমেক শিশু স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান হলেন অধ্যাপক ডা. রেজাউল করিম অবশেষে শুরু হচ্ছে টেকনাফ-কক্সবাজার সড়কের নির্মাণ কাজ উখিয়া ক্যাম্পে ডাকাতি প্রস্তুতিকালে অস্ত্রসহ ছয় রোহিঙ্গা গ্রেফতার বঙ্গোপসাগরে ভাসমান স্বর্ণ: বদলে দিতে পারে দেশের ভাগ্য! টেকনাফে পাহাড় থেকে অস্ত্রসহ ২ রোহিঙ্গা ডাকাত গ্রেফতার

সৌন্দর্য্য হারাচ্ছে হিমছড়ি ঝর্ণা

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৮
  • ২৪১ Time View
আব্দুল আলীম নোবেল::

অযত্নে আর অবহেলায় জৌলুস হারাচ্ছে প্রকৃতির নয়নাভিরাম সৌন্দর্যের নিদর্শন ‘হিমছড়ি ঝর্ণা পর্যটন স্পট’। অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনার কারণে ক্ষুব্ধ সেখানে ঘুরতে যাওয়া অনেক পর্যটক। তবে কর্তৃপক্ষ বলছে, স্পটটি পুনরুদ্ধার করতে ইকো-ট্যুরিজম প্রকল্পের আওতায় ইতোমধ্যে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।
কক্সবাজার শহর থেকে ৮ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত পর্যটন স্পট হিমছড়ি ঝর্ণা। সমুদ্রের পাশ ঘেঁষে পাহাড়ের বুক চিড়ে মেরিন ড্রাইভ সড়ক ধরে যেতে হয় এই পর্যটন স্পটটিতে। মৌসুমে কক্সবাজারের অন্য পর্যটন স্পটগুলোর মতোই প্রকৃতির অপরূপ নিদর্শন হিমছড়ি ঝর্ণাতেও পর্যটকদের ভিড় লেগেই থাকে। বর্তমানে পর্যটন স্পটটি বেহাল। পাহাড়ে ফাটল আর নোংরা পরিবেশের কারণে হতাশ ও ক্ষুব্ধ পর্যটকরা। উপরন্তু ইজারাদার পর্যটন স্পটটির আশপাশে মোটা অংকের টাকার বিনিময়ে অবৈধভাবে দোকান বসিয়ে দিয়েছে বলে অভিযোগ স্থানীয় সূত্রের। মৌরীন নামের এক পর্যটক জানান, অনেক নোংরা আশেপাশে। সেইরকম কোনও পরিবেশ নেই। আয়েশা নামের অপর এক পর্যটক জানান, ঝর্ণাটা আর আগের মতো ন্যাচারাল নেই। শুধু আমার কাছে নয় সবার কাছেই মনে হচ্ছে এটি আর্টিফিশিয়াল।
সীতাকুন্ড থেকে আসা হাবিব নামের এক পর্যটক বলেন, এখানে ন্যাচারালিটি বলতে কিছু নেই। সামান্য একটু জায়গার জন্য ৩০ টাকা হাতিয়ে নিচ্ছে।
এসব অনিয়মের বিষয়ে কোনও সদুত্তর দিতে পারেননি পর্যটন স্পটটির ইজারাদার নিযুক্ত কর্মচারীরা। টিকিট কাউন্টারে কর্মরত একজন বলেন, জানিনা কেন টিকিটের দাম ৩০ টাকা। এটা ইজারাদার বলতে পারবেন। আমি এখানে সামান্য কর্মচারী।
তবে কর্তৃপক্ষ বলছে, স্পটটি পুনরুদ্ধার করতে ইকো-ট্যুরিজম প্রকল্পের আওতায় ইতোমধ্যে নানা পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে।
কক্সবাজার দক্ষিণের বিভাগীয় বন কর্মকর্তা ও উপ-বন সংরক্ষক মো. আলী কবীর বলেন, পাহাড়ের ভাঙন অনেক আগ থেকেই শুরু হয়েছে। যার ফলে ঝর্ণা অনেক দূরে সরে গেছে। ইতোমধ্যে একটি প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে, প্রকল্পটি বাস্তবায়িত হলে অনেক কাজ করা সম্ভব হবে।

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Alokito Teknaf
Handicraft By SHAH