বৃহস্পতিবার, ৩০ জুন ২০২২, ১০:০০ অপরাহ্ন
সংবাদ শিরোনাম
রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নারী ও শিশু নির্যাতন রোধে ৮-এপিবিএন এর হটলাইন চমেক শিশু স্বাস্থ্য বিভাগের প্রধান হলেন অধ্যাপক ডা. রেজাউল করিম অবশেষে শুরু হচ্ছে টেকনাফ-কক্সবাজার সড়কের নির্মাণ কাজ উখিয়া ক্যাম্পে ডাকাতি প্রস্তুতিকালে অস্ত্রসহ ছয় রোহিঙ্গা গ্রেফতার বঙ্গোপসাগরে ভাসমান স্বর্ণ: বদলে দিতে পারে দেশের ভাগ্য! টেকনাফে পাহাড় থেকে অস্ত্রসহ ২ রোহিঙ্গা ডাকাত গ্রেফতার অপহৃত মিয়ানমারের দুই শিক্ষক বিজিপির নিকট হস্তান্তর উখিয়া রোহিঙ্গা সন্ত্রাসীদের গুলিতে তালিকাভূক্ত সন্ত্রাসী নিহত মিয়ানমার থেকে পাচারকালে ১কেজি আইসসহ পাচারকারী গ্রেফতার রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ‍‍‌‌‌‌‌‍’বাড়ি চলো’ ক্যাম্পেইন চলছে

বাজেট ২০১৮-১৯: দাম বাড়ছে-কমছে

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ৭ জুন, ২০১৮
  • ২৮৫ Time View

।। আলোকিত নিউজ ডেস্ক ।।

আগের বক্তব্য অনুযায়ী ২০১৮-১৯ অর্থবছরের বাজেটে অল্প কিছু বিলাসী পণ্যেই কর বাড়ানোর প্রস্তাব করেছেন অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আবদুল মুহিত। একইসঙ্গে সাধারণ মানুষের ওপর থেকে সরাসরি করের বোঝা কিছুটা কমানোর প্রস্তাবও করেছেন তিনি।

দাম বাড়ছে যা কিছুর

তবে আগামী অর্থবছরে প্রথমবারের মতো ইন্টারনেট বা সোস্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে পণ্য বা সেবা কেনার ক্ষেত্রে (ই-কমার্স) ৫ শতাংশ ভ্যাট বসানোর প্রস্তাব করা হয়েছে বাজেটে। ফলে অনলাইন কেনাকাটায় বাড়তি খরচ হবে ক্রেতাদের। অন্যান্য তথ্যপ্রযুক্তি সেবার খরচও বাড়ছে। এ ক্ষেত্রে ভ্যাট ৫ শতাংশ বাড়ানোর প্রস্তাব করা হয়েছে।

এদিকে, সব ধরনের চাল আমদানিতে ২৫ শতাংশ আমদানি শুল্ক ও ৩ শতাংশ রেগুলেটরি ডিউটির প্রস্তাব করা হয়েছে। এতে বাজারে আমদানি করা চালের দাম আবারও কিছুটা বাড়তে পারে।

স্থানীয় ব্র্যান্ডের পোশাকের ওপর ভ্যাট ৪ শাতংশ থেকে ৫ শতাংশ করা হয়েছে। নন-ব্র্যান্ড পোশাকের ক্ষেত্রেও একই হারে ভ্যাট প্রযোজ্য হবে। এতে দেশীয় ব্র্যান্ড ও নন-ব্র্যান্ড কাপড়ের দাম বাড়বে।

বিদ্যুতের ব্যবহার কমাতে আল্ট্রাভায়োলেট/ইনফ্রারেড ল্যাম্প ছাড়া অন্যান্য ফিলামেন্ট ল্যাম্পের ব্যবহার কমানোর জন্য ১০ শতাংশ শুল্ক আরোপের প্রস্তাব করা হয়েছে। এ ছাড়া, সিরামিকের বাথটাব, শাওয়ার, শাওয়ার ট্রে’র ওপর শুল্ক ২০ শতাংশ থেকে ৩০ শতাংশ করা হয়েছে। আসবাবপত্রের উৎপাদন পর্যায়ে ৭ শতাংশ ও বিপণন পর্যায়ে ৫ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করা হয়েছে।

আগে ১১০০ বর্গফুট পর্যন্ত আকৃতির ফ্ল্যাটের ওপর ১.৫ শতাংশ ভ্যাট থাকলেও নতুন কাঠামোতে ১৬০০ বর্গফুট পর্যন্ত আকৃতির ফ্ল্যাটে ২ শতাংশ ভ্যাট রাখা হয়েছে। এ ছাড়া, পুরাতন ফ্ল্যাট রেজিস্ট্রেশনেও ২ শতাংশ ভ্যাট আরোপ করা হয়েছে।

দাম ও খরচ বাড়ার তালিকায় আরো রয়েছে এনার্জি ড্রিংক, প্রসাধন সামগ্রী (শেভিং, পারফিউম, সানস্ক্রিন, লিপস্টিক, সূক্ষ্ম পশমী কাপড়, চুলের কাটা), সিরামিকের বাথটাব, শাওয়ার, শাওয়ার ট্রে, ফিলামেন্ট ল্যাম্প, পলিথিক ব্যাগ, প্লাস্টিক ব্যাগ, বিদেশি মধু, ফিনিশড চকোলেট, কফি, ইউপিএস-আইপিএস’র ব্যাটারি ও বাইসাইকেল।

এর বাইরে মোবাইল, ল্যাপটপ ও ব্যাটারির চার্জার (১০ ভোল্টের নিচে) আমদানিতে আমদানি শুল্ক ১০ শতাংশ থেকে বাড়িয়ে ১৫ শতাংশ করা হয়েছে। ফলে বাড়তে পারে ইলেট্রনিক পণ্যের চার্জারের দাম।

বাজেটে মোটরসাইকেলের উপকরণ আমদানিতে রেয়াতি সুবিধাও কমানোর প্রস্তাব করা হয়েছে। ফলে বাড়তে পারে আমদানি করা মোটরসাইকেলের দাম। বাইসাইকেল শিল্পের দু’টি উপকরণ আমদানিতেও আমদানি শুল্ক বাড়ানো হয়েছে। ফলে বাড়তে পারে বাইসাইকেলের দামও। স্থানীয় শিল্পকে সুরক্ষা দিতে এই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বলে জানান অর্থমন্ত্রী।

দাম কমছে যা কিছুর

রড, আমদানিকৃত গুঁড়া দুধ, রেফ্রিজারেটর, হাইব্রিড মোটরগাড়ি, ক্যান্সারের ওষুধ, টায়ার-টিউব, কলম, সেলুলার ফোন, সফটওয়্যার পণ্য ও কম্পিউটারের যন্ত্রাংশসহ বেশকিছু পণ্যের দাম কমছে বাজেটের পর।

১৮০০ সিসি পর্যন্ত হাইব্রিড মোটরগাড়ির আমদানি উৎসাহিত করার জন্য সম্পূরক শুল্ক ৪৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ২০ শতাংশ করা হয়েছে। ফলে দেশে হাইব্রিডর আমদানি বাড়বে এবং এ ধরনের গাড়ি কিনতে খরচ কম হবে। এ ছাড়া, টায়ার-টিউব উৎপাদনের দু’টি উপকরণে আমদানি শুল্কও কমানো হয়েছে। ফলে কিছুটা কমতে পারে টায়ার-টিউবের দাম।

দেশে উৎপাদিত সেলুলার ফোনের দামও কমবে। আর সফটওয়্যার আমদানিতে শুল্ক কমানো হয়েছে। কম্পিউটার যন্ত্রপাতি ও উপকরণ আমদানিতে শুল্ক কমানোয় এর দামও কমতে পারে কিছুটা। আমদানি পর্যায়ে মোবাইল ফোনে ২ শতাংশ সারচার্জ আরোপ করা হয়েছে।

হাতে বানানো পাউরুটি ও বিস্কুটের দাম ১০০ টাকা পর্যন্ত হলে এর জন্য কোনো ভ্যাট দিতে হবে না; ১৫০ টাকা পর্যন্ত দাম হলে হাতে বানানো কেকের ওপরও ভ্যাট দিতে হবে না। এ ছাড়া, ১৫০ টাকা পর্যন্ত দামের প্লাস্টিক ও হাওয়াই চপ্পলে ভ্যাট থাকবে না। আন্তর্জাতিক ফ্লাইট পরিচালনায় বন্দর সেবার ওপর বিদ্যমান ভ্যাট থাকছে না। আবার বীমা এজেন্ট কমিশনের ওপর ১৫ শতাংশ ভ্যাট অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে নতুন বাজেটে।

বরাবরের মতোই ওষুধ শিল্পের কাঁচামালে আমদানি শুল্ক কমানো হয়েছে। যেখানে ১০ শতাংশ আমদানি শুল্ক ছিল, সেখানে তা ৫ শতাংশে নামানো হয়েছে। সর্বোচ্চ ২৫ শতাংশ আমদানি শুল্কের ক্ষেত্রে কমিয়ে তা ১৫ শতাংশ করা হয়েছে। ফলে বাজারে কিছু কিছু ক্ষেত্রে কমতে পারে ওষুধের দাম।

লৌহ ও ইস্পাত শিল্পের ফেরো অ্যালয়ের রেগুলেটরি ডিউটি কমানো হয়েছে। ফলে বাজারে কমতে পারে লোহা ও ইস্পাত জাতীয় পণ্যের দাম। গুঁড়া দুধ আমদানিতে আমদানি শুল্ক ২৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ১০ শতাংশ করা হয়েছে। এতে বাজারে কমবে গুঁড়া দুধের দাম। রেফ্রিজারেটর ও কম্প্রেসার শিল্পের বিভিন্ন উপকরণ আমদানিতেও শুল্ক কমানোয় কমতে পারে ফ্রিজের দাম।

পোল্ট্রি ফিডের সয়াবিন ওয়েল কেক বিনা শুল্কে আমদানি করা যাবে। এতে পোল্ট্রি পণ্যের উৎপাদন কমায় বাজারে কমতে পারে মুরগির মাংসের দাম।

সূত্রঃসারাবাংলা.নেট

More News Of This Category
© All rights reserved © 2021 Alokito Teknaf
Handicraft By SHAH